হঠাত করে প্রচন্ড মন খারাপ হয়ে গেলে আপনারা কে কিভাবে নিজেকে সামাল দেবার চেষ্টা করেন?

হঠাত করে প্রচন্ড মন খারাপ হয়ে গেলে আপনারা কে কিভাবে নিজেকে সামাল দেবার চেষ্টা করেন?

মহাজ্ঞাণী প্রশ্ন করেছেন মে 22, 2018 এ বিভাগ জানা অজানা.

সর্বপ্রথম ওই বিষয়টি নিয়ে চিন্তা করা বাদ দি যেটা আমার মনকে দুর্বল করে দিচ্ছে। কিন্তু সবসময় এটা করা সম্ভব হয় না, তাই এই চিন্তাটি মন থেকে বাদ দেওয়ার জন্য অন্যকোনো ভালো বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে হয়। অনেক সময় ঘুরতে বের হয়ে যায়।আড্ডা দেই। আপনার মন খুব বেশী খারাপ থাকলে যদি আপনার খুব কান্না পায় তাহলে সেটাকে চেপে রাখবেন না। কারন কান্না চেপে রাখলেও মনের মধ্যে এক ধরনের অশান্তি তৈরী হয় এবং মন আরো বেশী খারাপ হয়ে যায়। তাই কান্না চেপে না রেখে কিছুক্ষন মন খুলে কাদি। তারপর মুখ ধুয়ে ফ্রেশ হয়ে বড় করে নিঃশ্বাস নি। এভাবে ৫ সেকেন্ড করে বিরতি দিয়ে আবার একই ভাবে বুক ভরে নিঃশ্বাস নিয়ে মনে মনে ২০ পর্যন্ত গুনি এবং দম ছেড়ে দি। এভাবে কয়েকবার করলে মন অনেকটাই হালকা হয়ে যায়। এরপরে তাতক্ষনাত বিষয়টা খুব কাছের কারও সাথে শেয়ার করি। সমাধান এ আসার চেস্টা করি। কখনো খুব একা থাকি।মুভি দেখি গান শুনি।পরিবার কে বেশি সময় দেই। আর নিজের আত্মবিশ্বাস কে আরো বাড়ানোরর চেস্টা করি। দিনশেষ এ সৃস্টিকরতার নিকট সাহায্য প্রার্থনা করি।

শিষ্য উত্তর দিয়েছেন মে 22, 2018 এ.

আমি রবীন্দ্র সঙ্গীত নিজেই গাওয়া শুরু করি। ” আমার এ ঘর বহু যতন করে, ধুতে হবে মুছতে হবে মোরে”, নয়ত, “আছে দুঃখ আছে মৃত্যু বিরহ দহন লাগে”। মন ভালো হয়ে যায়। আর তাছাড়া সবসময় মন কে ভালো থাকতে হবে কেন! মনের নিজস্ব কিছু ব্যাপার আছে না! তাকে তার মতই থাকতে দেয়া উচিত।

শিষ্য উত্তর দিয়েছেন মে 22, 2018 এ.

কুকিং, ক্লিনিং অ্যান্ড ওয়াশিং। মন এক্কেবারে ঝরঝরা হয়ে যায়।

মহাগুণী উত্তর দিয়েছেন মে 22, 2018 এ.

আপনার উত্তর

উত্তর দেওয়ার মাধ্যমে আপনি স্বীকার করছেন যে আমাদের নীতিমালাশর্তসমূহ পড়েছেন এবং কোনোরকম প্রতিক্রিয়া ছাড়াই মেনে নিয়েছেন।