ইসলামে দাঁড়িয়ে সহবাস করা বিধান কি?

অনেকে বলে দাঁড়িয়ে সহবাস করলে নাকি সন্তান বোবা হয়, এটা-সেটা আরো কতক রকমের কথা বলে এই গুলো কি সত্য?

পারদর্শী প্রশ্ন করেছেন মে 15, 2018 এ বিভাগ যৌন জিজ্ঞাসা.

আসলে ইসলাম সবসময় মানুষের কল্যাণে জন্য। যদিও ইসলামে সহবাসের নিয়ম-কানুন সুন্দরভাবে বলা আছে, সেখানে পশুর মত দাড়িয়ে করার বিধান কোথাও পাওয়া যায়নি এবং মেডিকেল সাইন্সও বলে যে অতিরিক্ত দাড়িয়ে সববাস করলে মহিলাদের কিডনির ক্ষতি হওয়ার আশংকা থেকে যায়। সেই হিসেবে আপনি আনন্দ করতে গিয়ে যদি যদি আপনার স্ত্রীর ক্ষতি চান তবে করত পারেন! তবে অতিরিক্ত নয়!

মে 16, 2018 এ.
মন্তব্য করুন

RE: ইসলামে দাঁড়িয়ে সহবাস করা বিধান কি?

দাঁড়িয়ে সহবাস করা ইসলামে নিষিদ্ধ নয়। স্বামী স্ত্রী যেরকম আসনে সহবাস করতে ইচ্ছে হয়, সেরকম আসনেই যোনিপথ দিয়ে সহবাসের আনন্দে লাভের জন্য লিপ্ত হতে পারবে।

দলীল স্বরূপ পবিত্র কোরআনের এই আয়াত টি যথেষ্ঠ।

তোমাদের স্ত্রীরা হলো তোমাদের জন্য শস্য ক্ষেত্র। তোমরা যেভাবে ইচ্ছা তাদেরকে ব্যবহার কর। আর নিজেদের জন্য আগামী দিনের ব্যবস্থা কর এবং আল্লাহকে ভয় করতে থাক। আর নিশ্চিতভাবে জেনে রাখ যে, আল্লাহর সাথে তোমাদেরকে সাক্ষাত করতেই হবে। আর যারা ঈমান এনেছে তাদেরকে সুসংবাদ জানিয়ে দাও। (আল-কুরআনঃ সুরা-বাকারা-আয়াত ২২৩)

এখন কেউ যদি বলে, দাঁড়িয়ে সহবাস করা ইসলামে নিষিদ্ধ, দাঁড়িয়ে সহবাস করলে এটা হয়, সেটা হয়, তাহলে তাঁর বক্তব্য হবে কুরআন বিরোধী।

সবার জ্ঞানের জন্য একটি কথা বলে রাখি, পবিত্র কুরআন এমন একটি গ্রন্থ যার একটি আয়াত দিয়েই অনেক কিছুর জবাব দেওয়া যায়।

পবিত্র কুরআনের এই আয়াত দিয়ে আল্লামা নুরুল ইসলাম ওলীপুরী মুনাফিকের চরিত্র নামক বয়ানে তসলিমা নাসরীনের প্রশ্নের (পুরুষেরা একত্রে ৪টি বিবি রাখতে পারলে নারীরা কেনো পারবে না) জবাব দিয়েছেন।

সহবাস করা হয় কি শুধু সন্তান লাভের জন্য?
সব সহবাসই সন্তান লাভের জন্য নয়। নারী পুরুষের অধিকাংশ সহবাস বা দৈহিক মিলন হয় পারস্পরিক সুখ লাভের জন্য। আমরা যদি যুক্তির খাতিরে কুসংস্কার বাদীদের কথা মেনেও নেই, তাহলেও, “এখন সন্তান গ্রহণের ইচ্ছুক নন বা গর্ভনিরোধ পদ্ধতি ব্যবহার করছেন, এমন দম্পতিরা দাঁড়িয়ে সহবাস করার পজিশনে দৈহিক মিলন করতে পারে।

দম্পতিরা যখন গর্ভনিরোধ পদ্ধতি ব্যবহার করছে, তখন তাদের দাঁড়িয়ে সহবাস করলে সন্তানের ক্ষতি হয়, সন্তান অন্ধ-বোবা-বিকালাঙ্গ হয়, এসব বিষয় নিয়ে চিন্তিত হবার কোন কারণ নেই।

আরও দেখুন : স্ত্রী সহবাসের ৩৫ টি আসন

স্বামী স্ত্রী তাদের যৌন জীবনের আনন্দ নিজেদের স্বাধীন ইচ্ছার মতো যাতে উপভোগ করতে পারে, সেজন্য ইসলাম স্ত্রী সহবাসের নিষিদ্ধ সময় ও স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছেন এবং সুরা বাকারা’র ২২৩ নং আয়াতে স্বামী স্ত্রীর স্বামী যৌন জীবন উপভোগ করার সুযোগ করে দিয়েছেন। তাই এসব কুসংস্কার বিশ্বাস করবেন না।

একমাত্র ইসলাম হচ্ছে কুসংস্কার মুক্ত ধর্ম। কিন্তু একদল ইসলামের নামে অনেক কুসংস্কার প্রথা মুসলিমদের ভিতরে লালন করাচ্ছে।

গুণী উত্তর দিয়েছেন মে 16, 2018 এ.

আপনার উত্তর

উত্তর দেওয়ার মাধ্যমে আপনি স্বীকার করছেন যে আমাদের নীতিমালাশর্তসমূহ পড়েছেন এবং কোনোরকম প্রতিক্রিয়া ছাড়াই মেনে নিয়েছেন।